Google Question Hub কি? সাইটে ভিজিটর নিন গুগল থেকে

Google Question Hub কি? অনেকেই ইতিমধ্যে নাম শুনেছেন কিন্তু বিস্তারিত অনেকেই জানেন না। এটুকু হয়তো বা বুঝতে পেরেছেন যে এখানে প্রশ্ন করা ও উত্তর দেয়া যায় যেকোন বিষয়ে। অনেকটা Quora এর মতো। কিন্তু কোরা বা রেডিট এর মত সাইট রেখে এটা কেনো ব্যাবহার করবেন? আজকে এই সকল বিষয়ে ধারণা দেয়ার জন্যেই এই আর্টিকেল লিখছি। 

Google Question Hub

Google Question Hub কি?

এটি গুগলের তৈরি একটি সাইট বা ফোরাম বলতে পারেন যেখানে আপনি আপনার মনে আসা যেকোন প্রশ্ন লিখে দিতে পারবেন। এবং কেও না কেও সেটির উত্তর আপনাকে দিবে। আপনিও চাইলে অন্যের করা প্রশ্নের উত্তর দিতে পারবেন। সহজ কথায় এটি একটি প্রশ্ন উত্তর সাইট। 


Google Question Hub কিভাবে কাজ করে? 

প্রথমেই বলে রাখা ভালো এটি শুধুমাত্র ৩টি দেশে চালু হয়েছে। ভারত, নাইজেরিয়া ও ইন্দোনেশিয়া। তাহলে আমার কাজ কি এখানে? বাংলাদেশে তো নেই। একটু দাড়ান, ভিপিএন বলে তো কিছু আছে তাইনা? আপনি ভারতের আইপি বা প্রক্সি দিয়ে এটি এক্সেস করতে পারবেন খুব সহজেই। 

আচ্ছা যাইহোক, এখানে আপনি আগে থেকে তৈরি করা বিভাগগুলোতে সেই সম্পর্কিত প্রশ্ন করতে পারবেন। ধরুন আপনার প্রশ্ন হলো LED কি? তো আপনি টেকনোলজি বিভাগে সেটি জিজ্ঞাসা করতে পারেন। 

সবই তো কোরার মতো তাহলে এই নতুন জিনিস কেনো? এখানেই মজা। এই পোর্টাল তৈরি হয়েছে আপনার আমার মতো ব্লগারদের জন্য। কারণ এখানে উত্তর দিয়ে নিজের সাইটের লিঙ্ক দেয়ার দরকার নেই বরং আপনার সাইটে যদি কোন আর্টিকেল থাকে যেটা এই পোর্টালের কোন প্রশ্নের উত্তর দিতে সক্ষম তবে আপনি আপনার সাইটের লিঙ্কটা সেখানে উত্তর হিসেবে দিতে পারবেন।

মজা না? গুগলই চাইছে আপনি আপনার সাইট প্রমোট করেন। আসলেই তাই। গুগল চাইছে ভালো কন্টেন্ট। আপনি ভালো কন্টেন্ট লিখুন গুগল আপনার হয়ে তা পৌছে দেবে হাজার মানুষের কাছে। 


Google Question Hub কেনো আলাদা? 

প্রথমত, এটি গুগলের একটি ডিজিটাল পণ্য। আর এটা আপনি নিশ্চই জানেন যে, গুগল এর গভীরতা ইন্টারনেট দুনিয়ায় কতটা বেশী। গুগলের যে কোন সেবা মানেই এখানে লক্ষ্য কোটি মানুষের আনাগোনা।

দ্বিতীয়ত, এটাই প্রথম অনলাইন পোর্টাল যেখানে আপনাকে উত্তর দিতে হবে আপনার সাইটের কোন আর্টিকেল এর লিঙ্ক দিয়ে। ধরুন আপনি একটি আর্টিকেল লিখেছেন সাকিব আল হাসান এর ক্যারিয়ার নিয়ে। এখন Google Question Hub এ কেও জিজ্ঞাসা করলো, সাকিব আল হাসান এর বয়স কত? বা সে কোন কোন কোচের আন্ডারে খেলেছে? এসব প্রশ্নের উত্তর কিন্তু আপনার আর্টিকেলে আছে। 

আপনি তখন সেসব প্রশ্নের উত্তর হিসেবে আপনার ওই আর্টিকেলটি শেয়ার করতে পারবেন। এই পোর্টাল আলাদা কারণ এটা তৈরি করা হয়েছে রিডার এবং ব্লগার উভয়ের কথা মাথায় রেখে। আপনিও যেমন আপনার আর্টিকেল প্রমোট করতে পারছেন তেমনি রিডার ও তার উত্তর খুব ভালোভাবে আর বিশদ আকারে পাচ্ছে এক ক্লিকেই। 


Google Question Hub থেকে ফ্রি ভিজিটর নিবেন কিভাবে? 

এতক্ষণে হয়তো বুঝে গেছেন তবে আমি আরেকটু সহজ করে দেই। আর্টিকেল লিখলেন কিন্তু তার জন্যে আবার প্রশ্ন খুজতে হবে তারপর পেলে সেখানে শেয়ার করবেন অনেক ভেজাল। একটু নাহয় উলটো পথে যান। আগে প্রশ্ন খুজুন, দেখুন কোন প্রশ্ন গুলো মানুষ বেশী করছে। সেই বিষয়ে আর্টিকেল লিখুন। তারপর সেসব প্রশ্নের উত্তর হিসেবে সেটা শেয়ার করুন Google Question Hub এ। 

এতে দুটো সুবিধা। আপনাকে ভাবতে হচ্ছেনা কি লিখবেন আবার লিখার আগেই আপনি কিছু ভিজিটর শুরুতেই পেয়ে যাবেন সেই নিশ্চয়তা নিয়ে লিখছেন। আর এই উত্তরগুলো আস্তে আস্তে অনেক মানুষ পড়বে। আর আপনার সাইটের ভিজিটর ও বাড়বে। এর চেয়ে সহজ আর কি হতে পারে। 


Quora থাকতে Google Question Hub কেনো?

কারণ, আপনি কোরা কিংবা রেডিট এর মত বড় প্রশ্ন উত্তর সাইটগুলোতে সবসময় নিজের লিঙ্ক শেয়ার করতে পারবেন না। তাতে আপনার একাউন্ট ব্লক হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। কিন্তু Google Question Hub এ আপনি উত্তর ই দিতে পারবেন সাইটের আর্টিকেল শেয়ার করে। তাই এটি কোরা বা রেডিট থেকে আলাদা এবং এক কথায় ব্লগারদের জন্য ফ্রি ভিজিটর নেয়ার একটা বড় সুযোগ। 


বাংলাদেশে নেই তাহলে কাজ করে কি লাভ?

নেই বলেই তো কাজ করবেন। বাংলাদেশ কেনো, সব দেশেই আসবে। আসার আগেই যদি আপনি সেখানে একটা পজিশন তৈরি করে নিতে পারেন তবে যখন দেশে আসবে তখন আপনিই এগিয়ে থাকবেন, তাই না? যেকোন কিছুতে শুরুতে থাকা ভাগ্যের ব্যাপার। কে জানে, একটা সময় হয়তো মানুষ সার্চ ইঞ্জিন ছেড়ে Google Question Hub এ উত্তর খুজবে। আর তখন আপনার যত বেশী উত্তর দেয়া থাকবে ততই লাভ।

আশা করি বুঝতে পেরেছেন Google Question Hub ভবিষ্যতে কতটা জনপ্রিয়তা পাবে আর তাই এখন থেকেই যদি আপনি এটা ব্যাবহার করা শুরু করেন তবে একটা সময় এটাই হতে পারে আপনার সাইটের ভিজিটর আনার অন্যতম একটা মাধ্যম। 

তাহলে আর দেরী কেনো, জিমেইল একাউন্ট তো আছেই। লগিন করে শুরু করে দিন আজ থেকেই। আর এই সম্পর্কিত যে কোন প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন। ধন্যবাদ আমাদের সাথে থাকার জন্য আর সময় নিয়ে আর্টিকেলটি পড়ার জন্য। 

নিত্য নতুন তথ্য জানতে নিয়মিত ভিজিট করুন BDTECH24 এ। 

Hot Posts

Post a Comment